আমার জন্ম পূর্ব ভালুকা "এখন ভালুকা পৌর সভার ৫নং ওয়ার্ড" সরকার বাড়ি, এ গ্রামটি ভালুকা থানা থেকে ১ কি:মি: পূর্বে,আর আপনাদের জানার স্বার্থে ভালুকা ময়মনসিংহ জিলার একটি থানা যার দূরত্ত রাজধানী ঢাকা থেকে ৮৫/৯০ কি:মি: এর মত হবে । উত্তরে ত্রিশাল,দহ্মিণে গাজীপুর,পূর্বে গফরগাঁও,পশ্চিমে ফুলবাড়িয়া অবস্থিত ।ভালুকার মোট আয়তন ৪৪৪.০৫ বর্গকি:মি:প্রায়। জনসংখ্যা প্রায় ৪ লহ্ম ।যার শিহ্মার হার ৫০%,কৃষি ভালুকার প্রধান পেশা । 

ছোট বেলা থেকে আমি নিজের ছবি তোলারচে অন্যের ছবি তুলে বেশি খুশি হতাম আমার কাছে কাজের সম্পুন্নতা আসে ছবি তোলার মাধ্যমে যদিও ছবি তোলাটাকে কখনও পেশা ভাবিনি এটা অনেকটাই কর্ম ক্লান্তী দূরকরার একটা মাধ্যম আমার জন্য,আপনাদের বলে বুঝানো সম্ভব হবেনা ছবি তোলতে আমি কত বেশি পছন্দ করি ।যখন যেমনই হোক ছবি আমার কাছে এক সপ্ন কারও না বলা কথা আমার মতে যা আপনি কল্পনা করে আনন্দ পান ছবি তার বাস্তব রুপ ।আমি প্রায় প্রতি দিন ছবি তুলি আমার ছবির তেমন কোন মূল বিষয় বস্তু নেই যাকিছু চোখের সামনে আসে যা আমার মনে হয় যদি পরে আবার দেখতে পারতাম ঐ মুহুর্তে আমি তার ছবি নিতে পছন্দ করি ।

নেটে ছবির সবচে বড় সাইড  flickr  আমি  flickr  এরও একজন সদস্য অনেক বছর,ওখানথেকেই এই সাইডটি খুলার পেরনা ,আমার চেষ্টা আমি আমার সমস্ত ছবির এক বিরাট এলভাম করব আমার এই সাইডটাকে । ছবি তোলার পাশাপাশি novel পড়া আমার এক ভিরাট শখ যে কোন নোভেল আমি পড়তে পারি আর নোভেল আমি যখনই পড়তে বসি আমি সবকিছু ভুলে যাই তাই বর্তমানে অফিস টাইমে নোভেল নিয়ে বসিনা তার পিছনে কিছু ছোট কথা আছে যা বললে আপনারা হাসতে পারেন তাই লিখলামনা । 

বাচ্চারা আমার সবচে প্রিয় ব্যাক্তি আমি শিশুদের অনেক ভালবাসি  আমি শিশুর মধ্যে নিজেকে দেখতে পায় । পৃথিবীর যে প্রান্তের শিশুই হোকনা কেন আমার সাথে বন্ধুত্ব হতে ১০মিনিটের বেশি সময় নেয় না অনেক প্রতিবেশি আছে আমাকে এখন নতুন নামও দিয়ে ফেলেছে নামটা এখানকার ভাষায় একটু মজাক তার পরও আমার কাছে খারাপ লাগেনা ভালই লাগে,আমি প্রতি রাতে ১০টা থেকে ১২ পর্যন্ত স্থানিয় যে সব ছোট ছোট পার্ক আছে ওখানে সময় কাটাতে পছন্দ করি কারন তখন ওখানে অনেক বাচ্চারা আসে এই ২ঘন্টা প্রায় প্রতিদিন তাদের সাথে আমি খেলাকরি ভাল লাগে  তা হয়ত আপনি আমার এলভাম দেখে বুঝতে পারছেন ।

আমি বর্তমানে সৌদি আরবে আছি তা অনেক বছর দেশটা শুধু মাত্র এখন স্নৃত্নি এর বেশি কিছুনা । দেশের কথা অনেক অনেক মনে পরে,মূলত ভালুকার সেই অড্ডা বরা দিন গুলো ।ফেলে আসা ভালুকা পাইলট স্কুলের সে মাঠ আর মাঠের ঘাসে আড্ডা মারা কিছু নাম অনেক মনে পরে ,তাদের সবার জন্য উৎসর্গ  www.aaftab.net
{সংসার জীবন আসলে কিছু না  আজ আছিত কাল নেই  সন্তানের মাঝে আমরা ভবিষ্যৎ না। বাংলা সাহিত্যে রবীন্দ্রনা বেঁচে আছে তার কর্ম দিয়ে তাঁর পুত্রকে দিয়ে নয়!মাদার তেরেসা কেউ নেই পৃথিবীতে তার পরও সমস্ত পৃথীবিটা আজ তার । সংসার জীবন মৃত্তুতে সমাপ্তি ঘটে আর কর্ম চীরজিবি হয়ে থাকে তাই কর্ম-ই সব ব্যাক্তি কিছু না , কর্ম দিয়ে যখন নিজেকে ব্যাক্তি থেকে প্রতিষ্ঠানে রুপান্তর করতে পারবে তখনই তুমি জীবিত অবস্থায় অন্যথা একটি পাথর আর তোমার মধ্যে কোন পার্থক্য নেই কর্ম যার কোন মৃত্তুনেই আমি সন্যাসী নই তার পরও সংসার জীবন-ই সব মানতে রাজী নই কিছু সময়ের জীবনের চে মৃত্তুর পরও মানুষের মাঝে বেঁচে থাকা আমার বেশি পছন্দ “আমি চিরজিবী হতে চললাম”............১৯৯৮ইং....... ।  (সানি)}
ভালুকাকে অনলাইনে নিয়ে আসার প্রয়াস করছি ।
ভালুকা সমন্ধে সকল প্রকার তথ্য ও বিনোদন নিয়ে ভালুকা,
www.valuka.com  www.valuka.net
 


valuka.com 


Copyright © 2010 valuka.com & aaftab.net All Rights Reserved